June 19, 2024

Warning: Undefined array key "tv_link" in /home/admin/web/timetvusa.com/public_html/wp-content/themes/time-tv/template-parts/header/mobile-topbar.php on line 53
মুসাফাহার পরে বুকে হাত, কি বলে ইসলাম?

মুসাফাহার পরে বুকে হাত, কি বলে ইসলাম?

মুসাফাহার পরে বুকে হাত, কি বলে ইসলাম?

মুসাফাহার পরে বুকে হাত, কি বলে ইসলাম?

দেখা হলে মুসাফাহা বা করমর্দন একটি ইসলামি রীতি ও সদাচারের আনন্দময় সংস্কৃতি । দু’জন মানুষের মধ্যে এটি প্রেম, ভালোবাসা এবং স্নেহের প্রকাশ। অন্যদিকে এটি মুসলমানদের পারস্পরিক বিদ্বেষ ও কলহ দূর করে।

মুসাফাহার ফযীলত সম্পর্কে  হাদীস উদ্ধৃত হয়েছে। সেই হাদিসে রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, “যদি  দুজন  মুসলিম  একে অপরকে সালাম দেয় এবং মুসাফাহা করে , তাহলে তাদের স্থান  বিচ্ছেদের আগেই  তাদের গুনাহ মাফ হয়ে যায়।” (সুনানে আবু দাউদ)

এবার প্রশ্ন হলো, ইসলাম কি মুসাফাহার পর বুকে হাত রাখা অনুমোদন করে , নাকি এটা কেবলই একটি প্রথা?

মুসাফাহার পর হাত বুকে রাখা নবী (সাঃ) ও সাহাবা (রাঃ) হতে প্রমাণিত নয়। সুতরাং কেউ যদি মুসাফাহ করার পর সুন্নাত  মনে  করে বা সওয়াবের আশায় বুকের উপর হাত রাখে বা মনে করে এটাই  মুসাফাহ করার নিয়ম, তাহলে তা স্পষ্ট বিদআত। কারণ রাসুল (সাঃ) বলেছেন-

হজরত আয়েশা (রা.) থেকে বর্ণিত- রাসূলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, ‘যে ব্যক্তি আমাদের দ্বীনের মধ্যে এমন নতুন কিছু আবিষ্কার করে যা এতে(দ্বীনে) নেই; তাহলে   তা পরিত্যক্ত। (সহীহ বুখারী, সহীহ মুসলিম, সুনানে আবু দাউদ)

মুসাফাহার পর বুকে হাত রাখা একটি প্রথা, যা কোরআন হাদিস সম্মত নয়। তাই এটি পরিহার করা উচিত।

মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামীন আমাদেরকে সহীহ সমজ দান করুন, আর সুন্নাতের উপর আমল করার তৌফিক দিন।   আমীন।

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    X