বিশ্ববাসীর চোখ তিনটি নির্বাচনের দিকে

বিশ্ববাসীর চোখ তিনটি নির্বাচনের দিকে

বিশ্ববাসীর চোখ তিনটি নির্বাচনের দিকে

বিশ্ববাসীর চোখ তিনটি নির্বাচনের দিকে

চলতি বছর বিশ্বের অনেক দেশেই জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক টাইম ম্যাগাজিনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এর মধ্যে ৫টি নির্বাচনই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। এসব নির্বাচনের ফলাফল বিশ্ব রাজনীতিতে নতুন রূপ দিতে পারে।

এই তালিকায় নাইজেরিয়া, তুরস্ক, পাকিস্তান, আর্জেন্টিনা এবং বাংলাদেশের নির্বাচন রয়েছে। এর মধ্যে নাইজেরিয়া ও তুরস্কে ইতোমধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বাকি তিনটি নির্বাচনের দিকে এখন বিশ্বের নজর।

আফ্রিকার দেশ নাইজেরিয়ায় চলতি বছরের শুরুতে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীকে বিজয়ী ঘোষণা করেছে দেশটির নির্বাচন কমিশন। যদিও বিরোধীরা এ নির্বাচনে অনিয়ম ও কারচুপির অভিযোগ তুলেছে। নাইজেরিয়ার নির্বাচনে কারচুপির জন্য দায়ীদের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপের হুমকি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। ১৫ মে, মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্থনি ব্লিঙ্কেন নাইজেরিয়া থেকে আসা কিছু ব্যক্তির উপর ভিসা নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছেন।

এদিকে গত মে মাসে তুরস্কে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। জিতেছেন রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান। তুরস্কে এরদোগানের ক্ষমতায় থাকার সুদূরপ্রসারী ভূ-রাজনৈতিক প্রভাব রয়েছে। ইউক্রেন যুদ্ধের প্রেক্ষাপটে তিনি রাশিয়া ও পশ্চিমা বিশ্বের মধ্যে যোগাযোগের একমাত্র সেতুর ভূমিকা পালন করেছেন।

পাকিস্তান

২০২২ পাকিস্তানের জন্য রাজনৈতিক এবং জলবায়ু সংকটের বছর ছিল। কিন্তু রাজনীতির দিক থেকে ২০২৩ সালেও সংকট অব্যাহত রয়েছে। গত বছর দেশের এক-তৃতীয়াংশ বন্যায় প্লাবিত হয়েছিল। বাস্তুচ্যুত হয়েছে তিন লাখের বেশি মানুষ। প্রায় ১৭০০ মানুষ প্রাণ হারিয়েছে। সেই বছরের শুরুর দিকে, মধ্যপন্থী পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) পার্টির চেয়ারম্যান এবং পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান অনাস্থা ভোটে ক্ষমতাচ্যুত হন। পাকিস্তানে ক্ষমতায় এসেছেন পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজ (পিএমএল-এন) এর শেহবাজ শরিফ।

তবে, শরিফের সরকার পাকিস্তানের অর্থনৈতিক সংকট, বন্যা এবং সন্ত্রাসী হামলার উত্থান ঠেকাতে ব্যর্থ হয়েছে। পাকিস্তান সরকারের এই ব্যর্থতা নিয়ে রাজনীতির মাঠ উত্তপ্ত করেছেন ইমরান খান। তিনি বারবার তাকে ক্ষমতাচ্যুত করার জন্য মার্কিন ষড়যন্ত্রকে দায়ী করেছেন। গত নভেম্বরেও তাকে হত্যার চেষ্টা হয়েছিল। গুলিবিদ্ধ হলেও প্রাণে বেঁচে যান তিনি।

ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার পর থেকেই আগাম নির্বাচনের দাবিতে সোচ্চার হয়েছেন ইমরান খান। অন্যদিকে তার বিরুদ্ধে একাধিক দুর্নীতির মামলা রয়েছে। একই ধরনের মামলায় ৯ মে গ্রেফতার হন ইমরান খান। ঘটনার পর, তার সমর্থকরা পাকিস্তান জুড়ে সামরিক অবকাঠামো এবং সরকারি ও বেসরকারি সম্পত্তিতে সহিংস আক্রমণ শুরু করে। ইমরান খানকে পরে মুক্তি দেওয়া হয়েছিল কিন্তু ৯ মে দাঙ্গার প্রেক্ষিতে তার দল প্রচণ্ড চাপের সম্মুখীন হয়। একের পর এক দল ছেড়েছেন বড় নেতারা।

পাকিস্তানের সংবিধান অনুযায়ী চলতি বছরের ১২ অক্টোবরের মধ্যে জাতীয় নির্বাচন হওয়ার কথা রয়েছে। তবে বিশেষজ্ঞরা এ নিয়ে সন্দিহান। এই প্রশ্নের উত্তর নিয়েও বিশাল প্রশ্নচিহ্ন রেখে যাচ্ছেন তারা। তবে বিশেষজ্ঞরা একটি বিষয়ে একমত যে পাকিস্তানে ইমরান খানের জনপ্রিয়তা ব্যাপক। তাই নির্বাচন যত তাড়াতাড়ি হবে ততই মঙ্গল।

আর্জেন্টিনা

আর্জেন্টিনায় রাষ্ট্রপতি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে ২৯ অক্টোবর। এছাড়া জাতীয় পরিষদ ও প্রাদেশিক গভর্নর নির্বাচনও ওই সময়ে অনুষ্ঠিত হবে। এবারের নির্বাচনে ভোট দেওয়ার সময় দেশের মানুষ চলমান অর্থনৈতিক সংকটের কথা মাথায় রাখবে। দেশে মূল্যস্ফীতি রেকর্ড শতভাগের কাছাকাছি পৌঁছেছে। এখনও উচ্চ মূল্যস্ফীতি আছে। আলবার্তো ফার্নান্দেজ, মধ্য-বাম নেতা ফ্রেন্টে ডি টোডোস, বর্তমানে দেশটির ক্ষমতায় রয়েছেন। তিনি তার পুনর্নির্বাচনের বিড ঘোষণা করেছেন।

নির্বাচনে তার প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী হতে যাচ্ছেন আর্জেন্টিনার রক্ষণশীল অর্থনীতিবিদ জাভিয়ের মিলি। তিনি রাজনৈতিক জোট লা লিবারতাদ আভাঞ্জার সম্ভাব্য প্রার্থী। মিলি নারীবাদ প্রত্যাখ্যান করেন এবং ঘোষণা করেন যে তিনি সমস্ত রকম করের বিরুদ্ধে। তিনি নিজেকে পুঁজিবাদী রাজনীতিবিদ হিসেবে বর্ণনা করেন।

গত বছরের সেপ্টেম্বরে আর্জেন্টিনার বর্তমান ভাইস প্রেসিডেন্ট ক্রিস্টিনা ফার্নান্দেজ ডি কির্চনারকে হত্যার চেষ্টা হয়েছিল। তিনি এক সময় আর্জেন্টিনার প্রেসিডেন্ট ছিলেন। কির্চনার সম্প্রতি ইঙ্গিত দিয়েছেন যে তিনি আবার শীর্ষ পদের জন্য দৌড়াবেন। কিন্তু গত বছর তিনি দুর্নীতির দায়ে দোষী সাব্যস্ত হন। ফলে আর্জেন্টিনার সংবিধান অনুযায়ী তাকে কোনো সরকারি পদে নিয়োগ দেওয়া নিষিদ্ধ।

বাংলাদেশ

বাংলাদেশের বর্তমান সরকার ২০০৯ সাল থেকে ক্ষমতায় রয়েছে। তবে বিশেষজ্ঞ ও বিরোধী রাজনীতিবিদরা অভিযোগ করছেন, ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ অন্যায়ভাবে নির্বাচনে জিতেছে। সাংবাদিকরা বলেছেন যে, তারা নির্বাচনের সময় ‘ব্যালট স্টাফিং’ (বৈধ ভোটের চেয়ে বেশি ব্যালট দেওয়া) প্রত্যক্ষ করেছেন। এ ছাড়া ভোটারদের ভয়ভীতি দেখানোর অভিযোগ রয়েছে।

২০১৮ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ২৯৮ টি সংসদীয় আসনের মধ্যে ৯৫ শতাংশের বেশি আসনে জয়লাভ করেছে। উড্রোর ডেপুটি ডিরেক্টর মাইকেল কুগেলম্যান বলেছেন, গণতন্ত্রে এটা খুবই অস্বাভাবিক

এই সরকার কঠোর হাতে দেশ শাসন করে চলেছে এবং বিরোধীদের দমন করতে দ্বিধা করে না।

সরকারবিরোধী বিক্ষোভে অনেক অনেক বিরোধী সমর্থককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে।রয়েছে। কুগেলম্যান সন্দিহান যে, অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন পরিচালনার দায়িত্ব পাওয়া নির্বাচন কমিশন আসলেই স্বাধীনভাবে কাজ করতে পারবে এবং শাসক দলের দ্বারা প্রবলভাবে প্রভাবিত হবে না। চলতি বছরের ডিসেম্বরে জাতীয় নির্বাচন হতে পারে। সেখানেই নির্ধারণ করা হবে বাংলাদেশে গণতন্ত্রের বিকাশ হবে নাকি গণতন্ত্র আরও সংকুচিত হবে।

    4 Comments

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    X