বিশ্বের অন্যতম মানবিক নেতা এরদোগান জয়ী

বিশ্বের অন্যতম মানবিক নেতা এরদোগান জয়ী

বিশ্বের অন্যতম মানবিক নেতা এরদোগান জয়ী

বিশ্বের অন্যতম মানবিক নেতা এরদোগান জয়ী

বিশ্বের  বড় মাপের  দরদী ও সাহসী মুসলিম নেতৃত্তের কর্ণধার হাফেজ রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান  আরো একবার  তুরস্কে ফেয়ার ইলেকশন এর মাধ্যমে  বিজয়ী হওয়ায়, এই অকুতোভয় নেতার প্রতি টাইম টেলিভিশন  ইউ এস এর পক্ষ থেকে লাল গোলাপ শুভেচ্ছা ও আন্তরিক অভিনন্দন।

তৃতীয় মেয়াদে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান। রোববার অনুষ্ঠিত দ্বিতীয় দফা নির্বাচনে তিনি ৫২ দশমিক ১৪  শতাংশ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হন। তার প্রতিদ্বন্দ্বী কামাল কিলিকদারোগ্লু ৪৭ দশমিক ৮৬  শতাংশ ভোট পেয়েছেন।

সুপ্রিম ইলেকশন কাউন্সিলের (ওয়াইএসকে) চেয়ারম্যান আহমেত ইয়েনার রাজধানী আঙ্কারায় ভোট গণনার ফলাফল ঘোষণা করেছেন। এর আগে সকাল ৮টায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে শেষ হয় বিকেল ৫টায়। তুরস্কের ইতিহাসে এটাই প্রথম রানঅফ।

১৪ মে প্রথম দফা ভোটে এরদোগান ৪৯.৫২ শতাংশ, কিলিকদারোগ্লু ৪৪.৮৮ শতাংশ এবং সিনান ওগান ৫.১৭ শতাংশ ভোট পেয়ে জয়ী হন। কেউ ৫০ শতাংশের বেশি না পাওয়ায় ভোট দ্বিতীয় দফায় গড়ায়। ৬৪ মিলিয়ন ভোটারের মধ্যে ৮৮.৮৪ শতাংশ ভোট দিয়েছেন।

প্রেসিডেন্ট প্রার্থী সিনান ওগান, যিনি প্রথম রাউন্ডের ভোটে তৃতীয় হন, পরে এরদোগানকে সমর্থন করেন।

এরদোগান ২১ বছর ধরে তুরস্কের ক্ষমতায় রয়েছেন। ২০১৪  সালের আগে, রাষ্ট্রপতি সংসদ দ্বারা নির্বাচিত হয়েছিল। ৬৯ বছর বয়সী এরদোগান ২০০৩ সাল থেকে তুরস্কের নেতৃত্ব দিচ্ছেন । তিনি প্রথমে প্রধানমন্ত্রী, ২০১৪ সাল থেকে রাষ্ট্রপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তারপর তিনি শাসন ব্যবস্থা সংস্কার করেন। ২০১৭  সালে, একটি গণভোটের মাধ্যমে, সংসদীয় ব্যবস্থা রাষ্ট্রপতিকে কেন্দ্র করে এবং প্রধানমন্ত্রীর পদ বিলুপ্ত করা হয়।

তুরস্কে প্রেসিডেন্ট পাঁচ বছরের মেয়াদে দুই মেয়াদে দায়িত্ব পালন করতে পারেন। 2017 সালের গণভোটের কারণে তার প্রথম মেয়াদ শেষ হওয়ায়, তিনি এই বছর তৃতীয় মেয়াদের জন্য প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে সক্ষম হন। এবার জয়ী হওয়ায় এরদোগান ২০২৮ সাল পর্যন্ত প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।

আঙ্কারার রাস্তায় এরদোগানের বিজয় উদযাপন করতে জনগণ বলেন, “তিনি আমাদের জাতীয় মানুষ।” তিনি শিল্পকে সমৃদ্ধ করেছেন। অবকাঠামোগত উন্নয়ন করেছেন।

তাদের মতে, এরদোগান শুধু তুর্কিই নয়, এই অঞ্চলের ও একজন শক্তিশালী নেতা। তারা বলেন আমাদের এখনও অনেক সমস্যা আছে, কিন্তু এরদোগান প্রমাণ করেছেন যে তিনি দেশ পরিবর্তন করতে পারেন।

অন্যদিকে বিজয়ের খবর নিশ্চিত হওয়ার পর ইস্তাম্বুলে ভোটারদের সামনে বক্তব্য রাখেন এরদোগান। তিনি দেশবাসীকে ধন্যবাদ জানান।

এরদোগান বলেন, “আমরা দ্বিতীয় দফার নির্বাচন শেষ করেছি। জনগণ আমাদের ভোট দিয়েছে। আল্লাহর ইচ্ছায় আমরা জনগণের আস্থা অর্জন করেছি এবং গত ২১ বছর ধরে ক্ষমতায় আছি।”

তিনি বলেন, তার দেশের ৮৫ মিলিয়ন (সাড়ে আট কোটি) মানুষ জয়ী হয়েছে। তার মতে,পুরো তুরস্কই  আসলে এই নির্বাচনে জিতেছে। তিনি বলেন, কেউ তার দেশকে টার্গেট করতে পারবেনা।

 

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    X