সুরের মূর্ছনায় নিউ ইর্য়কবাসী উপভোগ করলো মনোরোম সন্ধ্যা

সুরের মূর্ছনায় নিউ ইর্য়কবাসী উপভোগ করলো মনোরোম সন্ধ্যা

সুরের মূর্ছনায় নিউ ইর্য়কবাসী উপভোগ করলো মনোরোম সন্ধ্যা

বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব পারফর্মিং আর্টস বিপার উদ্দ্যোগে নিউইর্য়কের কুইন্সের উডসাইডের পি.এস ১২ এর অডিটরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো বিপা কনসার্ট সিরিজ জলসা প্রেজের্ন্টস -সুরের মূর্ছনা। এতে সঙ্গীত পরিবেশন করেন শফিকুল ইসলাম, তানজিন আখতার সানি, অনন্ত প্রত্যয় ও অজেয় অর্ক।

বিপা’র আমন্ত্রণে ফ্লোরিডা থেকে এই সঙ্গীত পরিবারটি এসেছেন নিউইয়র্কে এসেছেন গান শোনাবার জন্য। শফিকুল ইসলাম ও তানজিন আখতার সানির সন্তান – অজেয় অর্ক ও অনন্ত প্রত্যয়। আমেরিকার নিউইর্য়কে জন্ম এবং বড় হয়ে উঠা এই জমজ ভাইদের অসাধারন বাংলা গান, হলভর্তি দর্শক প্রাণভরে উপভোগ করলেন।

অনন্ত প্রত্যয় শোনালেন – দেখো আলোয় আলো আকাশ, যেতে যেতে পথে হলো দেরি, বোঝেনা সে বোঝেনা, তুম হি হো, আবার এলো যে সন্ধ্যা এবং অজেয় অর্ক গাইলেন- শোনো গো দক্ষিণ হাওয়া, কিসি নজর কো তেরা, মন মাঝিরে, ওরে প্রিয়া। বাংলা ও হিন্দি মিলিয়ে তারা প্রায় ১০টি গান পরিবেশন করেন।

শফিকুল ইসলাম গাইলেন- সেইতো আবার কাছে এলে, কেঁদে কেঁদে কি হবে, এই দিন থাকবেনা। শফিকুল ইসলামের কথা ও সুরে – ইশারায় আমায় যদি, তুমিতো বদলে গেছো দ্বৈত সঙ্গীত পরিবেশন করেন শফিকুল ইসলাম ও তানজিন আখতার সানি।

অনুষ্ঠান শেষে শফিকুল ইসলাম ও তানজিন আখতার সানি আয়োজক সংগঠন বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব পারফর্মিং আর্টস (বিপা) সহ সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন- ফ্লোরিডা থেকে আমরা এসেছি প্রাণের শহর নিউ ইয়র্কে, প্রাণের মানুষদের গান শোনাতে। ভালোবাসার টানে, গানের টানে ভবিষ্যতে আবারও আসব।

অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন বিপা’র প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক সেলিমা আশরাফ এবং উপস্থাপনার ছিলেন গোপন সাহা। এছাড়াও কি-বোর্ডে সাইফুল আলম মিঠু, গীটারে মো: ইমরান খান চন্দন, তবলায় পিনাক পানি গোস্বামী, অক্টোপ্যাডে মনতোষ দে মিথুন ও সাউন্ডে ছিলেন বিডি সাউন্ডের নিবিড়।

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    X