আখেরাতের প্রতি দৃঢ় বিশ্বাসঃ গুরুত্বপূর্ণ কয়টি বিষয়

আখেরাতের প্রতি দৃঢ় বিশ্বাসঃ গুরুত্বপূর্ণ কয়টি বিষয়

আখেরাতের প্রতি দৃঢ় বিশ্বাসঃ গুরুত্বপূর্ণ কয়টি বিষয়

আখেরাতের প্রতি দৃঢ় বিশ্বাসঃ গুরুত্বপূর্ণ কয়টি বিষয়

আখেরাতের প্রতি দৃঢ় বিশ্বাসীই ইসলামকে অন্যান্য ধর্ম থেকে একটি স্বতন্ত্র মর্যাদায় উন্নীত করেছে।  এবং পারলৌকিক বিশ্বাসকে কেন্দ্র করেই ইসলামের সকল কর্ম পরিচালিত হয়।সকল প্রকার নৈতিক সমাজ পরিচালিত হয়  এই পরকালকে কেন্দ্র করেই।  তাই পরকালের প্রতি বিশ্বাস ইসলামের মৌলিক ভিত্তির অন্যতম দিক। এবং সেদিকেই সবাইকে ফিরে যেতে হবে । তাই নিম্নের কয়েকটি বিষয়ের প্রতি গুরুত্ব দিয়ে পরকালের প্রতি ঈমানকে মজবুত করতে হয়।

  • পুনরুত্থানে বিশ্বাসঃ

মৃতকে কবর থেকে উঠানো হবে। সব মানুষ আল্লাহর সামনে দাঁড়াবে। তাদের জামা-জুতা এক জায়গায় সংগ্রহ করা হবে।

আল্লাহ বলেন, ‘অবশ্যই তোমাদের পরে মৃত্যু হবে। অতঃপর অবশ্যই কিয়ামতের দিন তোমাদেরকে পুনরুত্থিত করা হবে।

  • হিসাব ও মিজান বা পাল্লায় ওজনের প্রতি বিশ্বাসঃ

আল্লাহ কিয়ামতের দিন এই পৃথিবীতে জীবের কৃতকর্মের হিসাব নেবেন। আমলগুলো মিজান বা পাল্লায় ওজন করা হবে।

যার নেক আমল তার খারাপ কাজের চেয়ে ভারী সে জান্নাতে যাবে। যার খারাপ কাজ তার ভালো কাজের চেয়ে বেশি সে জাহান্নামে যাবে। মহান আল্লাহ বলেন, ‘অতঃপর যার ডান হাতে তার আমল দেওয়া হবে, শীঘ্রই তার হিসাব সহজ করা হবে। আসলে সে সন্তুষ্ট চিত্তে তার পরিবারের সদস্যদের কাছে ফিরে যাবে।

কিন্তু যার আমল তার পিঠে দেওয়া হয়, সে অচিরেই মৃত্যুকে ডাকবে এবং সে জ্বলন্ত জাহান্নামে প্রবেশ করবে।’ (সূরা ইনশিকাক, আয়াত৭-১২)

  • জান্নাত ও জাহান্নামে বিশ্বাসঃ

জান্নাত চির সুখ ও শান্তির স্থান। সর্বশক্তিমান আল্লাহ তা মুমিনদের জন্য প্রস্তুত করেছেন। আর জাহান্নাম হল চিরস্থায়ী কষ্টের জায়গা। যারা আল্লাহ ও তাঁর রাসূলকে অমান্য করে তাদের জন্য আল্লাহ তা প্রস্তুত করেছেন।

আল্লাহ বলেন, ‘আর দ্রুত এগিয়ে যাও তোমার রবের ক্ষমা ও জান্নাতের জন্য। যার প্রশস্ততা আসমান ও জমিনের সমান, যা মুত্তাকিদের জন্য সৃষ্টি করা হয়েছে।

অন্য আয়াতে মহান আল্লাহ বলেন, ‘তাহলে যারা হতভাগা তারা জাহান্নামে থাকবে। আর তাদের জন্য চিৎকার ও হাহাকার হবে।’ (সূরা: হুদ, আয়াত: ১০৬)

    1 Comment

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    X