“তিন শূন্যে ” নতুন সভ্যতা গড়ে তোলার আহ্বানপ্রফেসর ইউনূসের

“তিন শূন্যে ” নতুন সভ্যতা গড়ে তোলার আহ্বানপ্রফেসর ইউনূসের

"তিন শূন্যে " নতুন সভ্যতা গড়ে তোলার আহ্বানপ্রফেসর  ইউনূসের

তিন শূন্যে ” নতুন সভ্যতা গড়ে তোলার আহ্বানপ্রফেসর  ইউনূসের

নোবেল বিজয়ী অর্থনীতিবিদ

১.  শূন্য গ্লোবাল ওয়ার্মিং,
 ২.  শূন্য সম্পদ ঘনত্ব
৩. এবং শূন্য বেকারত্ব

এর উপর ভিত্তি করে একটি নতুন সভ্যতা তৈরির আহ্বান জানিয়েছেন। মুহাম্মদ ইউনূস। তিনি অর্থনৈতিক কাঠামোর পুনর্গঠনসহ বিভিন্ন নীতি ও প্রতিষ্ঠানের যথাযথ সংস্কারের ওপর জোর দেন যা মূলত বিশ্বের প্রধান সমস্যার জন্য দায়ী।

তিনি একটি নতুন সভ্যতা বিনির্মাণে সামাজিক ব্যবসা, বিশ্বব্যাপী ব্যবসায়িক উদ্যোগ এবং তরুণদের ভূমিকার ওপর জোর দেন। জার্মান পোস্ট কোড লটারি চ্যারিটি ফেস্টিভ্যালে দেওয়া এক বক্তৃতায় তিনি এই আহ্বান জানান।

অধ্যাপক ইউনূস ছাড়াও বক্তব্য রাখেন অভিনেতা জর্জ ক্লুনি। ক্লুনি তার কাজ এবং অভিজ্ঞতার গল্প বলেন। ক্লুনি উল্লেখ করেছেন যে কীভাবে প্রফেসর ইউনূসের প্রবর্তিত ক্ষুদ্রঋণ মডেলটি দক্ষিণ সুদান, দারফুর এবং অন্যান্য যুদ্ধ-বিধ্বস্ত অঞ্চলের পুনর্গঠন এবং জনগণের জীবনযাত্রার মান উন্নয়নের জন্য একটি কার্যকর পদ্ধতি হিসেবে কাজ করছে। তিনি ক্ষুদ্রঋণকে একটি ‘উল্লেখযোগ্যভাবে সফল’ পন্থা হিসাবে স্বাগত জানান এবং এই উজ্জ্বল ধারণা নিয়ে আসার জন্য অধ্যাপক ইউনূসকে ধন্যবাদ জানান।

জার্মান পোস্ট কোড লটারিটি  ইউরোপের পাঁচটি পোস্ট কোড লটারির মধ্যে একটি। পোস্ট কোডের ভিত্তিতে এই লটারিতে অংশ নেয় এসব দেশের ১ কোটি ৩০ লাখ মানুষ। পোস্ট কোড লটারি আয়ের ৩৩ থেকে ৪০  শতাংশের মধ্যে সারা বিশ্বে দাতব্য প্রতিষ্ঠানকে দান করা হয়। ডাচ পোস্টকোড লটারি এবং জার্মান পোস্টকোড লটারি বহু বছর ধরে প্রফেসর ইউনূসের বিশ্বব্যাপী সামাজিক ব্যবসা আন্দোলনকে সমর্থন করে আসছে।

ইউনূস সেন্টারের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    X