যে দেশে বিবাহবিচ্ছেদ মানেই উদযাপন আর উৎসব

যে দেশে বিবাহবিচ্ছেদ মানেই উদযাপন আর উৎসব

যে দেশে বিবাহবিচ্ছেদ মানেই উদযাপন আর উৎসব

যে দেশে বিবাহবিচ্ছেদ মানেই উদযাপন আর উৎসব

পশ্চিম আফ্রিকার দেশ মৌরিতানিয়ার এটি একটি দীর্ঘ ঐতিহ্য। সেখানে বিয়ে এবং ডিভোর্স মানেই উৎসবের, অনেকে ৫-১০ বার বিয়ে করে। দেশে ‘অপ্রীতিকর ও অস্বাস্থ্যকর’ পরিবেশে  এক বিবাহের নজির খুব কমই আছে। এই ধরনের ক্ষেত্রে, সে দেশের দম্পতিরা একে অপরকে ছেড়ে দেয় এবং স্বাভাবিকভাবেই বিবাহবিচ্ছেদের কাগজপত্রে স্বাক্ষর করে।

মৌরিতানিয়ায় বিবাহবিচ্ছেদকে ভ্রুকুটি করা হয় না, লজ্জা দেওয়া হয় না বা শোক করা হয় না। বরং বিবাহ বিচ্ছেদকে  একটি উদযাপন মনে করা হয়। সে দেশে নারীর ডিভোর্স হলে কান্নাকাটি হয় না। অপমান করার দরকার নেই। ‘ডিভোর্স পার্টি’ উদযাপন করা এই নারী চাইলে অন্য কাউকে বিয়েও করতে পারেন।

শতাব্দীর পর শতাব্দী ধরে দেশে এই প্রথা চলে আসছে। ডিভোর্স পার্টিতে এসে মহিলারা একসাথে বসে খাওয়া-দাওয়া, গান ও নাচ করে থাকে। বর্তমানে এই পার্টির স্টাইল কিছুটা পরিবর্তন হলেও পরিবেশ প্রায় আগের মতোই রয়েছে।

মৌরিতানিয়ায় বিবাহবিচ্ছেদ খুবই  সাধারণ,যেখানে  ১০০% মুসলিম। অনেকেই জীবনে ৫ থেকে ১০ বার বিয়ে করেন। এটা জানা যায় যে কিছু মানুষ তাদের জীবনে ২০ বারও  বিয়ে করে।

উল্লেখ্য যে মুররা তাদের পূর্বসূরিদের কাছ থেকে উত্তরাধিকার সূত্রে শক্তিশালী ‘মাতৃতান্ত্রিক প্রবণতা’ পেয়েছে। সমাজবিজ্ঞানীরা বিশ্বাস করেন যে এটি মৌরিতানিয়ায় বিবাহবিচ্ছেদের একটি  অন্যতম কারণ।

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    X