June 19, 2024

Warning: Undefined array key "tv_link" in /home/admin/web/timetvusa.com/public_html/wp-content/themes/time-tv/template-parts/header/mobile-topbar.php on line 53
যুক্তরাষ্ট্রের ক্রিকেট ধাক্কায় প্রথম দল হিসেবে হারের সেঞ্চুরি বাংলাদেশের

যুক্তরাষ্ট্রের ক্রিকেট ধাক্কায় প্রথম দল হিসেবে হারের সেঞ্চুরি বাংলাদেশের

যুক্তরাষ্ট্রের ক্রিকেট ধাক্কায় প্রথম দল হিসেবে হারের সেঞ্চুরি বাংলাদেশের

যুক্তরাষ্ট্রের ক্রিকেট ধাক্কায় প্রথম দল হিসেবে হারের সেঞ্চুরি বাংলাদেশের

ক্রিকেট কাকে বলে? এবং দল নিয়ন্ত্রণ কিভাবে করতে হয়? বোলিং, ব্যাটিংআর ফিল্ডিং সকল ক্ষেত্রে একেবারেই নতুন রাষ্ট্র, যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশকে শিখিয়ে দিল ক্রিকেট খেলা, টি-টোয়েন্টি খেলা কী?  আর আমাদের যুক্তরাষ্ট্রের কাছে বাংলাদেশ সিরিজ হারের পরাজয়ের ধাক্কায় আরো একটি বড় অর্জন হয়েছে সেটা হল ১০০ তম হাড়ের অনন্য রেকর্ডে বাংলাদেশ। যা কিনা আবার সর্বপ্রথম হারের সেঞ্চুরির রেকর্ড। রেকর্ড তো রেকর্ডই। খেলায় হার-জিত থাকবেই। তবে একটি বড় ধরনের সর্বপ্রথম রেকর্ডেপড়ার কারণে বাংলাদেশকে নিয়ে ক্রিকেট দুনিয়া তোলপাড়।

সামনেই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। এই টুর্নামেন্টকে সামনে রেখে যুক্তরাষ্ট্র ক্রিকেট টিমের  বিপক্ষে তিন ম্যাচের সিরিজ খেলছে বাংলাদেশ। ইতিমধ্যেই দুই ম্যাচ হারায় সিরিজ হেরে বেশ বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়েছে টাইগার দাবিদাররা। শক্তির বিচারে অনেক পিছিয়ে থাকা যুক্তরাষ্ট্রের কাছে এক ম্যাচ আগেই সিরিজ হেরেছে নাজমুল হাসান শান্তর দল। সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে ৬ রানে হেরে লজ্জার মাইলফলক স্পর্শ করেছে বাংলাদেশ।

ক্রিকেট বিশ্বের প্রথম দল হিসেবে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে ১০০ টি পরাজয়ের স্বাদ পেল বাংলাদেশ পুরুষ ক্রিকেট দল। ২৩ মে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে হার ছিল টাইগারদের ১০০ তম হার।

বাংলাদেশসহ ৩টি দল প্রথম হারে ১০০ ছুঁয়ে যাওয়ার দৌড়ে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের পরাজয়ের সংখ্যা ৯৯। জিম্বাবুয়ে- ১৪৫ ম্যাচে ৯৫ পরাজয়।

নিউজিল্যান্ড- ২১৬ ম্যাচে ৯০ পরাজয়। যুক্তরাষ্ট্রে এসে একই ৯৮ টি পরাজয় নিয়ে বাংলাদেশ পরপর দুই ম্যাচ হেরে সেঞ্চুরি পূর্ণ করে। বাংলাদেশ দল এখন পর্যন্ত ১৬৮ টি আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ম্যাচের মধ্যে  ৪ টিতে জিতেছে । ১০০ টি হেরেছে , ৪টিতে  ড্র ।

২০০৬ সালে বাংলাদেশ প্রথম টি-টোয়েন্টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছিল। খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে সেই ম্যাচে টাইগারদের প্রতিপক্ষ ছিল জিম্বাবুয়ে। এরপর গত দেড় শতকে ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত সংস্করণে গৌরবের চেয়ে লজ্জার রেকর্ডই বেশি বাংলাদেশের। বৃহস্পতিবার সেই তালিকায় যোগ হলো আরেকটি লজ্জা। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে প্রথম দল হিসেবে ১০০ হারের রেকর্ড স্পর্শ করেছে বাংলাদেশ।

টেক্সাসের প্রেইরি ভিউ ক্রিকেট কমপ্লেক্সে সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ১৪৪ রান করেছে যুক্তরাষ্ট্র। জবাবে তিন বল বাকি থাকতে ১৩৮ রানে অলআউট হয়ে যায় বাংলাদেশ। সিরিজ হারের সাথে টাইগাররা ১০০ পূর্ণ করেছে।

কিছু দিন ধরে যেখানে টি-টোয়েন্টিতে ১০০ টি পরাজয়ের শিকার হওয়া প্রথম দল হওয়ার দৌড়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৯৯ হারে এগিয়ে ছিল।

একই দিনে হিউস্টন থেকে ২,৩০০ কিলোমিটার দূরে জ্যামাইকার সাবিনা পার্কে দক্ষিণ আফ্রিকার মুখোমুখি হয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। প্রোটিয়াদের হারিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ আপাতত লজ্জা এড়িয়ে গেলেও যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে হেরে নিজেদের রেকর্ড করে নেয় বাংলাদেশ। বাংলাদেশ এখন পর্যন্ত ১৬৮ টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছে।

যেখানে টাইগারদের ১০০  টি হারের বিপরীতে ৬৪ টি জয় রয়েছে। হার ৫৯.৫২ শতাংশ। যা হারের শতকরা হিসাবে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ। জিম্বাবুয়ে ৬৫.৫১ শতাংশ ম্যাচ হেরে এখানে শীর্ষে। একই দিনে আরেকটি প্রথম লজ্জার স্বাদ পেল বাংলাদেশ। আইসিসির পার্টনার দেশগুলোর বিপক্ষে আগের টি-টোয়েন্টিতে হেরে গেলেও প্রথমবারের মতো সিরিজ খেয়েছে টাইগাররা। এই তালিকায় দুই নম্বরে রয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। একই দিনে দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়ে ১৯২ ম্যাচের মধ্যে ৯৯ টিতেই হেরেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তারা ৮০ টি ম্যাচে জিতেছে এবং ১০ টি ম্যাচে ব্যর্থ হয়েছে।

১৮৯  ম্যাচে ৯৮ হারে শ্রীলঙ্কা এই তালিকায় ৩ নম্বরে রয়েছে। ৮৫টি জয়ে লঙ্কানদের হারের হার ৫১.৮৫। সবচেয়ে বেশি হারের হার জিম্বাবুয়ে ১৪৫ ম্যাচের মধ্যে ৯৫টিতে হেরেছে। এবং ৪৭  জিতেছে। ২১৬  ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের পঞ্চম সর্বোচ্চ ৯০  হার। এই সময়ে কিউইরা জিতেছে ১০৯ ম্যাচে। বাংলাদেশ এখন পর্যন্ত ১৩টি ভিন্ন প্রতিপক্ষের বিপক্ষে খেলেছে। যেখানে সবচেয়ে বেশি ২৫টি ম্যাচ জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে এবং সবচেয়ে বেশি হেরেছে ১৬টি ম্যাচ পাকিস্তানের বিপক্ষে। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বাংলাদেশ জিতেছে ১৭ ম্যাচে আর হেরেছে ৮ ম্যাচে। পাকিস্তানের বিপক্ষে ১৯টি ম্যাচ খেলে জিতেছে মাত্র ৩টি ম্যাচে।

এখন পর্যন্ত ৪টি দলের বিপক্ষে জয় পায়নি বাংলাদেশ। এর মধ্যে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ৮টি ম্যাচ খেলেও জয়হীন টাইগাররা। এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে ৩টি, স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে ২টি এবং হংকংয়ের বিপক্ষে ১টি ম্যাচ খেলেও জিততে পারেনি বাংলাদেশ।

তাবদ্দুনিয়ার পরাশক্তির অন্যতম রাষ্ট্র ক্রিকেট শক্তিতেও এগিয়ে যাচ্ছে।  তাই যুক্তরাষ্ট্র এগিয়ে যাক,  মাথা উঁচু করে ক্রিকেট খেলায় পৃথিবীকে আনন্দের দাঁড়ায় বইয়ে দিক।  সেই প্রত্যাশায় যুক্তরাষ্ট্রের ক্রিকেট টিমকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

আরও পড়ুন

ট্রফি হাতে শ্বশুর আফ্রিদি ও জামাই আফ্রিদি

প্রতিদিন দুই ডজন (২৪ টি) ডিম খান পাকিস্তানের এক দ্রুত গতির বোলার !

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    X