May 25, 2024

Warning: Undefined array key "tv_link" in /home/admin/web/timetvusa.com/public_html/wp-content/themes/time-tv/template-parts/header/mobile-topbar.php on line 53
১১জনকে কামড় দেওয়ার পর অবশেষে হোয়াইট হাউজ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয় ‘কমান্ডার’কে

১১জনকে কামড় দেওয়ার পর অবশেষে হোয়াইট হাউজ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয় ‘কমান্ডার’কে

১১জনকে কামড় দেওয়ার পর অবশেষে হোয়াইট হাউজ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয় 'কমান্ডার'কে

১১জনকে কামড় দেওয়ার পর অবশেষে হোয়াইট হাউজ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয় ‘কমান্ডার’কে

‘কমান্ডার’ তো শুধু কমান্ডার নয়,হোয়াইট হাউজের কমান্ডার জার্মান শেফার্ড কুকুর ।  তাই বলেই তাকে নিয়ে আজকে বিশ্বের সকল মিডিয়া সোচ্চার । অনেক মিডিয়াতে প্রথম এবং প্রধান শিরোনাম হয়েছে। কমান্ডার যেখানেই থাকো ভালো থাকো; কাউকে আর কামড় দিওনা প্লিজ। কারণ তুমি আছো এখন গোয়েন্দা নজরদারিতে । বিহ্যভ ভালো হলে আবারও  ডাক পেতে পারো হোয়াইট হাউজে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রিয় পোষা কুকুর কমান্ডার আর হোয়াইট হাউসে নেই। ফার্স্ট লেডি জিল বাইডেনের একজন মুখপাত্র বলেছেন, হোয়াইট হাউসের স্টাফ এবং ইউএস সিক্রেট সার্ভিসের কর্মকর্তাসহ বেশ কিছু লোককে কামড়ানোর পর কুকুরটিকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

ফার্স্ট লেডিস কমিউনিকেশন ডিরেক্টর এলিজাবেথ আলেকজান্ডার বলেছেন, প্রেসিডেন্ট এবং তার স্ত্রী হোয়াইট হাউসের স্টাফ এবং নিরাপত্তা কর্মীদের নিরাপত্তার বিষয়ে গভীরভাবে যত্নশীল ।  কমান্ডার বর্তমানে হোয়াইট হাউস ক্যাম্পাসে নেই, আলেকজান্ডার একটি ইমেল বিবৃতিতে বলেছেন। রাষ্ট্রপতি এবং ফার্স্ট লেডি মার্কিন সিক্রেট সার্ভিস এবং জড়িত সকলের ধৈর্য ও সমর্থনের জন্য কৃতজ্ঞ। কারণ তারা প্রতিনিয়ত সমাধান খোঁজার চেষ্টা করছে।

তবে আলেকজান্ডার বলেননি যে দুই বছর বয়সী জার্মান শেফার্ডকে কোথায় পাঠানো হয়েছিল বা এই পদক্ষেপটি স্থায়ী কিনা। কমান্ডারকে সর্বশেষ গত শনিবার হোয়াইট হাউসে প্রেসিডেন্টের প্রাইভেট কোয়ার্টারের উপরের বারান্দায় দেখা গিয়েছিল। হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি কারিন জিন-পিয়ের বলেছেন যে গত মাসে, বাইডেনের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা এক কর্মীকে বাইডেনের দুই বছর বয়সি কমান্ডার কামড়ে দিয়েছিল।।

সিক্রেট সার্ভিস এজেন্সির প্রধান অ্যান্থনি গুগলিয়েলমি বলেছেন, আহত গোয়েন্দা কর্মকর্তার চিকিৎসা করতে হবে। পিয়ের আরও বলেন, কমান্ডার এবং হোয়াইট হাউসের প্রধান গ্রাউন্ডসকিপার ডেল হ্যানি যখন একসঙ্গে খেলছিলেন তখন কাউকে আঘাত করেননি। মার্কিন সিক্রেট সার্ভিস স্বীকার করেছে যে তাদের ১১ এজেন্টকে রাষ্ট্রপতির কুকুর কামড় দিয়েছে। তবে, মার্কিন মিডিয়া জানিয়েছে যে প্রকৃত সংখ্যা বেশি এবং কুকুরটি হোয়াইট হাউসের অন্যান্য কর্মীদেরও কামড় দিয়েছে।

ডিপার্টমেন্ট অফ হোমল্যান্ড সিকিউরিটি রেকর্ড অনুসারে এই ধরনের একটি ঘটনার জন্য একজন আহত আইন প্রয়োগকারী কর্মকর্তার জন্য হাসপাতালে যাওয়ার প্রয়োজন ছিল। ২৫সেপ্টেম্বর ইউনিফর্মধারী সিক্রেট সার্ভিস অফিসারের সাথে জড়িত একটি কামড়ের ঘটনার পরে, আলেকজান্ডার বলেছিলেন, হোয়াইট হাউস পারিবারিক পোষা প্রাণীদের জন্য একটি চাপপূর্ণ পরিবেশ হতে পারে এবং কমান্ডারের প্রায়শই অপ্রত্যাশিত প্রকৃতির পর্যালোচনা করার উপায়গুলি নিয়ে কাজ করা হচ্ছে।

সিক্রেট সার্ভিস রাষ্ট্রপতি এবং তার পরিবারের জন্য নিরাপত্তা সুরক্ষা প্রদান করে। এর কয়েক ডজন কর্মকর্তা হোয়াইট হাউস প্রাসাদ এবং এর বিস্তীর্ণ মাঠের চারপাশে নিরাপত্তার জন্য দায়ী। কমান্ডার হোয়াইট হাউসে আক্রমণাত্মক আচরণ প্রদর্শনকারী বাইডেনের দ্বিতীয় কুকুর। এর আগে হোয়াইট হাউসে মেজর নামে একজন জার্মান শেফার্ড ছিলেন।

বাইডেনের ভাই জেমস এটি কমান্ডারকে ২০২১ সালের ডিসেম্বরে উপহার হিসাবে দিয়েছিলেন। বাইডেনের প্রিয় কুকুর চ্যাম্প ২০২১ সালে ১৩ বছর বয়সে মারা গিয়েছিল। তাদের উইলো নামে একটি বিড়ালও রয়েছে।

হ্যাঁ জানিয়া থাকবেন যে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বিডেনের ‘কমান্ডার’কে হোয়াইট হাউস থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। এই কমান্ডার কোন সাধারণ মানুষ ছিলেন না, আমেরিকান ফার্স্ট লেডির প্রিয় পোষা জার্মান শেফার্ড কুকুর। উপরের ব্যালকনি থেকে পুরো হোয়াইট হাউসে তার অবাধ প্রবেশাধিকার ছিল। ২ বছর বয়সী জার্মান শেফার্ডের তীক্ষ্ণ কন্ঠে পুরো হোয়াইট হাউস গুঞ্জন করেছিল। কিন্তু যত দূর তত ভাল।  একটি ২বছর বয়সী জার্মান শেফার্ড সম্প্রতি হোয়াইট হাউসের কর্মীদের উপর হামলা শুরু করে। ফলে হোয়াইট হাউসের কর্মীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। এমনকি ডাকাবুকো নিরাপত্তাকর্মীরাও আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। অবশেষে ‘কমান্ডার’ আর হোয়াইট হাউসে নেই বলে জানিয়েছেন মার্কিন ফার্স্ট লেডির কমিউনিকেশন ডিরেক্টর এলিজাবেথ আলেকজান্ডার।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, প্রেসিডেন্ট বিডেন এবং তার স্ত্রী হোয়াইট হাউসের কর্মীদের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বিগ্ন যারা সবসময় তাদের নিরাপত্তা দিয়ে থাকেন। কমান্ডার বর্তমানে হোয়াইট হাউস ক্যাম্পাসে নেই। তবে রাষ্ট্রপতি ও ফার্স্ট লেডির প্রিয় পোষা প্রাণীটিকে কোথায় পাঠানো হয়েছে তা তিনি স্পষ্ট করেননি।

আরও পড়তে

বিয়ের সাজে হোয়াইট হাউজ

২৪৭ বছরের মার্কিন ইতিহাসে সবচেয়ে বড় সামরিক বাজেট প্রস্তাব প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের

বন্দুক সহিংসতা বন্ধ করতে ভারী অস্ত্র নিষিদ্ধ করতে যাচ্ছে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন

সম্প্রতি, সিক্রেট সার্ভিসের কর্মী থেকে হোয়াইট হাউসের কর্মীরা বাইডেনের প্রিয় কম্যান্ডার জার্মান শেফার্ডের কামড় খেয়েছেন বলে অভিযোগ। বিশেষ করে, গত ২৫সেপ্টেম্বর থেকে বেশ কয়েকজনকে কামড় দেওয়া হয়েছে। কখন, কোন দিক থেকে, কার উপর এই কমান্ডার আক্রমণ করে তা জানা যায়নি। অভিযোগ, কিছু বুঝে ওঠার আগেই কেউ তাকে কামড় দেয়। সম্প্রতি হোয়াইট হাউসের আরেক কর্মীকে কামড়ানোর অভিযোগ উঠেছে। বুধবারের দৈনিক ব্রিফিংয়ের সময় হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি কারিন জিন-পিয়েরকে এই বিষয়ে জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল। যদিও এই অভিযোগের স্পষ্ট জবাব দেননি কারিন। তিনি বলেন, বাইডেন পরিবার কমান্ডারকে আরও ভালো প্রশিক্ষণ দিতে আগ্রহী। তার বক্তব্যের কয়েক ঘণ্টা পর হোয়াইট হাউস থেকে কমান্ডারকে বহিষ্কারের খবর পাওয়া যায়। গত শনিবার কমান্ডারকে শেষবার দেখা গিয়েছিল উপরের বারান্দায়। এখন তার অবস্থান কোথায় তা এখনও স্পষ্ট নয়। তবে  নজরদারির বাইরে নয় কমান্ডার ।

    1 Comment

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    X