মানব মস্তিষ্কে চিপ বসানোর অনুমতি পেয়েছে ইলন মাস্কের ‘নিউরোলিংক’

মানব মস্তিষ্কে চিপ বসানোর অনুমতি পেয়েছে ইলন মাস্কের ‘নিউরোলিংক’

মানব মস্তিষ্কে চিপ বসানোর অনুমতি পেয়েছে ইলন মাস্কের 'নিউরোলিংক'

মানব মস্তিষ্কে চিপ বসানোর অনুমতি পেয়েছে ইলন মাস্কের ‘নিউরোলিংক’

বিশ্বের অন্যতম ধনী ব্যবসায়ী ইলন মাস্কের কোম্পানি ‘নিউরোলিংক’ যুক্তরাষ্ট্রে পরীক্ষামূলকভাবে মানুষের মস্তিষ্কে চিপ বসানোর অনুমতি পেয়েছে। বৃহস্পতিবার মার্কিন খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসন (এফডিএ) এ অনুমোদন দিয়েছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত কেউ পরীক্ষার জন্য নির্বাচিত হয়নি।

সংশ্লিষ্টদের মতে, এই চিপের ফলে শারীরিক ও মানসিক প্রতিবন্ধীরা স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে পারবেন। “নিউরোলিংক” অনেক আগে থেকেই এটি নিয়ে কাজ করছিল। তারা এর আগে সফলভাবে শূকর এবং বানরের মস্তিষ্কে নিউরালিংক ডিভাইস স্থাপন করেছে এবং দাবি করেছে যে প্রক্রিয়াটি সম্পূর্ণ নিরাপদ।

একটি টুইট বার্তায় সংস্থাটি বলেছে, “আমরা অত্যন্ত আনন্দের সাথে ঘোষণা করছি যে ডিভাইসটিকে এফডিএ মানুষের পরীক্ষার জন্য ছাড়পত্র দিয়েছে। নিউরোলিংক ডিভাইসটি মূলত একটি মুদ্রার আকৃতির। রোবোটিক সার্জারির মাধ্যমে এটি মস্তিষ্কের মাথার খুলি কেটে প্রতিস্থাপন করা হয়। এর তারগুলি মস্তিষ্কে চালিত হয়।

একই কথা জানিয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির নির্বাহী কর্মকর্তা। এ প্রসঙ্গে ইলন মাস্ক বলেন, এটি আপনার চুলের নিচে রাখা হবে। যা আপনি বুঝতেও পারবেন না। এর আগে, একটি উপস্থাপনায়, ‘নিউরোলিংক’ মস্তিষ্কের ডিভাইসের সাহায্যে  কিছু বানর ভিডিও গেম খেলতে এবং একটি মাউস কার্সার সরাতে সক্ষম হয়েছিল।

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    X