মন ভালো রাখতে নিয়মিত যা খাবেন

মন ভালো রাখতে নিয়মিত যা খাবেন

মন ভালো রাখতে নিয়মিত যা খাবেন

মন ভালো রাখতে নিয়মিত যা খাবেন

মর্মাহত? মন ভাঙ্গা? নাকি মেজাজ খারাপ আছে? হ্যাঁ এমন  কিছু খাবারও  আছে যেগুলো উদ্বেগ ও বিষণ্নতা দূর করার জন্য চমৎকার। বিশ্বাস হচ্ছে না? আপনার মন খারাপ হলে আরও সমস্যা দেখা দেবে ভাবছেন? তাই আগে মনের দিকে তাকানো জরুরি। কিছু খাবার আছে যা বিষণ্ণতার মেঘ মুছে দিতে কাজ করে। এগুলো খেতে হবে। এবার জেনে নিন কোন খাবারগুলো আপনার বিষণ্নতা দূর করতে কাজ করবে।  ‘কিছু খাবার আছে যা আসলে আপনাকে ভালো রাখবে। এই খাবারগুলো মস্তিষ্কে এমন রাসায়নিক নির্গত করতে সাহায্য করে যা আপনাকে সুখী বা আনন্দিত করবে।’

প্রোবায়োটিকস খাবার খান

প্রোবায়োটিক খাবার আপনার মনকে সুস্থ রাখতে সাহায্য করতে পারে। এই ধরনের খাবারের স্বাভাবিক মাইক্রোবিয়াল ভারসাম্য পুনরুদ্ধার করার ক্ষমতা রয়েছে। সেজন্য উদ্বেগের চিকিৎসা ও প্রতিরোধে এর ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ। এই ধরনের খাবার আমাদের শরীরের প্রদাহ কমাতে সাহায্য করে। এটি ভাল অনুভূতি তৈরি করে এবং আপনার চাপের প্রতিক্রিয়াকে প্রভাবিত করে মেজাজ নিয়ন্ত্রণে একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

ম্যাগনেসিয়াম জাতীয় খাবার খান

ম্যাগনেসিয়াম সমৃদ্ধ খাবার আমাদের মন সুস্থ রাখতে ভূমিকা রাখে। এটি কেন্দ্রীয় স্নায়ুতন্ত্রের কার্যকারিতা নিয়ন্ত্রণ করে। ম্যাগনেসিয়াম সমৃদ্ধ খাবার খাওয়া মস্তিষ্কে উত্তেজক এবং বাধা সংকেত ভারসাম্য বজায় রাখতে সাহায্য করে, উদ্বেগ বা চাপ কমায়। ম্যাগনেসিয়াম । যা মস্তিষ্কে উপকারী প্রভাব ফেলে মনকে প্রফুল্ল রাখে।

ভিটামিন ডি জাতীয় খাবার খান

শরীর ও মন সুস্থ রাখতে ভিটামিন ডি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ভিটামিন ডি উদ্বেগের প্যাথোফিজিওলজিতে জড়িত মস্তিষ্কের টিস্যুগুলিকে প্রভাবিত করতে পারে। তাই বিষণ্নতা থেকে মুক্তি পেতে ভিটামিন ডি যুক্ত খাবার খান। এছাড়াও প্রতিদিন অন্তত ২০ মিনিট রোদে কাটাতে হবে। কারণ ভিটামিন ডি এর সবচেয়ে বড় উৎস সূর্যের আলো।

উপরের লিখিত মানসম্পন্ন খাদ্যগুলোর একটি তালিকা নিম্নে দেয়া হলো ।  খাওয়ার চেষ্টা করুন মন ভালো থাকবে।

  • কলা

কলাতে উচ্চ পরিমাণে অ্যামিনো অ্যাসিড এবং ট্রিপটোফ্যান থাকে। এই উপাদানগুলি মনকে শিথিল করতে এবং ঘুমের উন্নতি করতে সাহায্য করে। এটি মস্তিষ্কে সেরোটোনিন নামক রাসায়নিক উৎপন্ন করে, যা আপনার মনকে উৎফুল্ল  রাখবে । মস্তিষ্কে এই রাসায়নিকের ঘাটতি হতাশার দিকে পরিচালিত করে।

  • টমেটো

টমেটোতে লাইকোপিন থাকে। এটি মানসিক চাপ কমাতে সাহায্য করে এবং শরীরের ক্লান্তি দূর করে। মন খারাপ থাকলে টমেটোর সালাদ খেতে পারেন। মন কিছুটা হলেও মজবুত হবে।

  • সূর্যমুখী বীজ

এই বীজ মন ভালো করতে সাহায্য করবে। এটি অ্যামিনো অ্যাসিডের একটি ভালো উৎস। এটি মস্তিষ্কে সুখী রাসায়নিক তৈরি করতে কাজ করে এবং বিষণ্নতা দূর করে।

  • বাদাম

একমুঠো বাদাম খেলে মনে ইতিবাচক পরিবর্তন আসে। এর মধ্যে রয়েছে প্রোটিন, ভিটামিন এবং ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড। এগুলো  উদ্বেগ এবং হতাশার বিরুদ্ধে কাজ করে। মন খারাপ থাকলে একমুঠো বাদাম খেতে পারেন। মন ভালো হয়ে যাবে। প্রতিদিন বাদাম খাওয়া খুবই উপকারী । এই খাবার শরীরে বিভিন্ন উপকার করে। বাদামে রয়েছে ফাইবার, প্রোটিন এবং স্বাস্থ্যকর চর্বি। ফলে বাদাম জাতীয় খাবার খেলে তা মনের যত্ন নেয়। এটি হতাশা, উদ্বেগ এবং উদ্বেগের মতো সমস্যাগুলিও কমাতে পারে। বাদাম, আখরোট, পেস্তা বাদাম  খাওয়া ভালো। আপনি যে বাদামই খান না কেন, খেয়াল রাখবেন তা যেন বেশি না হয়। প্রতিদিন এক মুঠোই  যথেষ্ট।

  • চকোলেট

এতে অ্যানানডামাইড নামে একটি যৌগ রয়েছে। এটি হতাশা থেকে মুক্তি দেয় এবং মনকে উন্নত করে। তবে এই উপাদানটি ভালো মানের চকলেট ও ডার্ক চকলেটে পাওয়া যায়। তাই মন খারাপ থাকলে চকলেট খেতে পারেন।

  • মাছ

নিয়মিত মাছ খান। সবচেয়ে ভালো হয় যদি সামুদ্রিক মাছ খেতে পারেন। কারণ এই ধরনের মাছে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড থাকে। এই ফ্যাটি অ্যাসিডগুলি হতাশা দূর করতে জাদুর মতো কাজ করে। বিভিন্ন গবেষণায় এর প্রমাণও পাওয়া গেছে। স্যামন, টুনা মাছ আপনার মন সুস্থ রাখতে একটি দুর্দান্ত কাজ করবে। এ ছাড়া অন্য যেকোনো মাছ নিয়মিত খাদ্য তালিকায় রাখুন। তাহলে আর চিন্তা করতে হবে না।

সবশেষে বলা যায়; সঠিক খাবার যেকোনো মানসিক চাপ বা উদ্বেগ কমাতে কাজ করে। আপনি যদি কোনো কারণে স্ট্রেস বা মন খারাপ বোধ করেন তবে কিছু খাবার আছে যা আপনি এটি উপশম করতে খেতে পারেন। সেই খাবারগুলো আপনার দুঃখ দূর করে সুখ ফিরিয়ে আনবে।

আরও পড়ুন

    1 Comment

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    X