বাথরুমে ফোন ব্যবহার করা উচিত নয় কেন?

বাথরুমে ফোন ব্যবহার করা উচিত নয় কেন?

বাথরুমে ফোন ব্যবহার করা উচিত নয় কেন?

বাথরুমে ফোন ব্যবহার করা উচিত নয় কেন?

টয়লেটে ফোন ব্যবহার করেন? কমোডে বসে ফেসবুক, গুগল বা মেসেঞ্জারে চোখ বুলিয়ে নেন? কিন্তু আপনার অজান্তেই মহা বিপদ ডেকে আনছেন! বিশেষজ্ঞদের মতে, বাথরুমে ফোন ব্যবহার করলে শরীরে বাসা বাঁধতে পারে  কঠিন ব্যাধি!

অনেকে অস্বীকার করলেও এটা সত্য যে অনেকেই টয়লেটে বসে মোবাইল ফোন ব্যবহার করেন। সাম্প্রতিক একটি সমীক্ষায় আরও দেখা গেছে যে ৫৭ শতাংশ ব্রিটিশরা টয়লেটে তাদের মোবাইল ফোন ব্যবহার করে ।

 যেভাবে রোগ ছড়াতে পারে?
  • গবেষকদের মতে, টয়লেটের ভেজা পরিবেশে ব্যাকটেরিয়া দ্রুত বংশবৃদ্ধি করে।
  • টয়লেট ব্যবহার করার সময় ভুলভাবে হাত না ধোয়া বা মোবাইল একই জায়গায় রাখার কারণে সালমোনেলা, ই.কোলি, সিগেলা এবং ক্যাম্পাইলোব্যাক্টরের মতো ব্যাকটেরিয়া দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে।
  • বিশেষজ্ঞরা বলছেন, গ্যাস্ট্রো এবং স্ট্যাফের মতো ক্ষতিকারক ভাইরাস ফোনের টাচস্ক্রিনে লেগে যেতে  পারে।
  • টয়লেট ব্যবহার করার পরে, আমরা ফোনটি বিছানা বা ডাইনিং এর জায়গায় রাখি এবং সেখানেও ব্যবহার করি।
  • চিকিৎসকরা বলছেন, মোবাইল ফোনে থাকা এসব ক্ষতিকর ভাইরাস ও ব্যাকটেরিয়া লালার সঙ্গে মিশে দ্রুত শরীরে ছড়িয়ে পড়ে। অনেকেই টয়লেট ব্যবহারের পর ভালোভাবে হাত না ধুয়ে মোবাইল ফোন ব্যবহার করেন।
  • তার থেকেই রোগ ছড়ায়। কিছু গবেষকের মতে, মোবাইল ফোন চালু এবং ক্রমাগত ব্যবহার করার সময় এর তাপমাত্রা ইতিমধ্যেই বেশি থাকে। এই তাপ ব্যাকটেরিয়া বৃদ্ধিতে সাহায্য করে।
  • মোবাইল ফোন ব্যবহার করা মানে টয়লেটে বেশি সময় কাটানো, যা পাইলস এর কারণ হতে পারে।

টয়লেটে আপনি যত বেশি সময় আপনার মোবাইল ফোন ব্যবহার করবেন, ততক্ষণ আপনি সেখানে থাকবেন। এর ফলে শিরা এবং মলদ্বারে চাপ বেড়ে যায় যা পাইলসের অন্যতম কারণ। এসব পাইলসে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি কমাতে টয়লেটে মোবাইল ফোন ব্যবহার না করার পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা।

    2 Comments

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    X