গরু ও গরুর মাংস আমদানির বিষয়ে নির্দেশনা চেয়ে রিট

গরু ও গরুর মাংস আমদানির বিষয়ে নির্দেশনা চেয়ে রিট

গরু ও গরুর মাংস আমদানির বিষয়ে নির্দেশনা চেয়ে রিট

গরু ও গরুর মাংস আমদানির বিষয়ে নির্দেশনা চেয়ে রিট

সাধারণ মানুষের ক্রয়ক্ষমতার মধ্যে রাখতে  গরুর মাংস আনতে জীবিত গরু ও গরুর মাংস আমদানির নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২০ জুন) সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় আইনজীবী ড. মাহমুদুল হাসান রিটটি করেন।

রিটে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব ও টিসিবির চেয়ারম্যানকে বিবাদী করা হয়েছে।

রিট আবেদনকারী বলেন, গরুর মাংস বাংলাদেশের অধিকাংশ মানুষের প্রধান খাদ্য। কিন্তু বাজারে গরুর মাংসের দাম অস্বাভাবিক বৃদ্ধি পেয়ে বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি ৭৫০ থেকে ৮৫০ টাকায়। এছাড়া প্রতিনিয়ত দাম বাড়ছেই। গরুর মাংস ইতোমধ্যে নিম্নবিত্ত ও মধ্যবিত্তের ক্রয়ক্ষমতার বাইরে চলে গেছে।

রিটে বলা হয়েছে, আমদানি নীতি ২০২১-২০২৪  অনুযায়ী গরুর মাংস একটি আমদানিযোগ্য পণ্য। অন্যদিকে, ‘দ্য ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ অর্ডার’ ১৯৭২-এর ১২ ধারা অনুযায়ী, প্রয়োজনীয় পণ্য আমদানি এবং বাজার মূল্য সহনীয় রেখে বাজারে পণ্য সরবরাহ নিশ্চিত করা টিসিবির আইনগত দায়িত্ব।

কিন্তু টিসিবি বিদেশ থেকে জীবিত গরু ও গরুর মাংস আমদানি না করে আইনগত দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হয়েছে। অন্যদিকে দায়িত্বশীল এসব মন্ত্রণালয় ও সংস্থার ব্যর্থতার কারণে বাজারে গরুর মাংস নিম্নবিত্ত ও মধ্যবিত্ত মানুষের ক্রয়ক্ষমতার বাইরে চলে গেছে।

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    X