খেলাপি ঋণ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৮ হাজার ১৮০ কোটি টাকা

খেলাপি ঋণ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৮ হাজার ১৮০ কোটি টাকা

খেলাপি ঋণ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৮ হাজার ১৮০ কোটি টাকা

খেলাপি ঋণ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৮ হাজার ১৮০ কোটি টাকা

দেশে ফের বেড়েছে ব্যাংকিং খাতের খেলাপি ঋণ। গত মার্চে ব্যাংকগুলোতে খেলাপি ঋণের পরিমাণ ছিল ১ লাখ ১৩ হাজার ৪৪০ কোটি টাকা। গত মার্চে তা বেড়ে দাঁড়ায় ১ লাখ ৩১ হাজার ৬২০ কোটি টাকা। সে অনুযায়ী এক বছরে খেলাপি ঋণ বেড়েছে ১৮ হাজার ১৮০ কোটি টাকা।

এর মধ্যে গত জানুয়ারি-মার্চ মেয়াদে খেলাপি ঋণ বেড়েছে প্রায় ১১ হাজার কোটি টাকা। গত ডিসেম্বর শেষে খেলাপি ঋণ ছিল ১ লাখ ২০ হাজার ৬৫৬ কোটি টাকা। রোববার বাংলাদেশ ব্যাংকের খেলাপি ঋণের হালনাগাদ বিবরণী থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

ব্যাংক কর্মকর্তারা জানান, গত ডিসেম্বর শেষে খেলাপি ঋণের বিষয়ে ব্যাংকগুলো যে তথ্য দিয়েছে তা নিরীক্ষা করা হয়নি।

পরে বাংলাদেশ ব্যাংক কয়েকটি ব্যাংকের ঋণ পরিদর্শন করে খেলাপি হয়। আবার কোনো কোনো ব্যাংকের ঋণ খেলাপির উপযুক্ত হলেও তা নিয়মিত দেখানোর সুযোগ দেওয়া হয়। সব মিলিয়ে মার্চ শেষে খেলাপি ঋণ বেড়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তারা বলছেন, ব্যাংকগুলো এখন নিজেদের ঋণ পুনর্নির্ধারণ করছে।

ফলে খেলাপি ঋণ কমানোর সুযোগ পাচ্ছে ব্যাংক। তাই খেলাপি ঋণের এই তথ্য বাস্তব চিত্র নয়। বাস্তবে খেলাপি ঋণ বেশি হতে পারে। অনেক ব্যাংক ঋণ আদায় করতে না পারায় তারল্য সংকটে ভুগছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের হিসাব অনুযায়ী খেলাপি ঋণ ১ লাখ ৩১ হাজার ৬২০ কোটি টাকা হলেও আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের হিসাব অনুযায়ী তা প্রায় ৩ লাখ কোটি টাকা।

কারণ আইএমএফ পুনঃনির্ধারিত এবং পুনর্গঠিত ঋণ, সন্দেহজনক ঋণ এবং আদালতের আদেশে ডিফল্ট স্থগিতাদেশের অধীনে ঋণ খেলাপি দেখানোর পক্ষে।

    1 Comment

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    X