প্রত্যাবাসনে রাজি হওয়া রোহিঙ্গাদের খাবার দিচ্ছেনা জাতিসংঘ

প্রত্যাবাসনে রাজি হওয়া রোহিঙ্গাদের খাবার দিচ্ছেনা জাতিসংঘ

প্রত্যাবাসনে রাজি হওয়া রোহিঙ্গাদের খাবার দিচ্ছেনা জাতিসংঘ

প্রত্যাবাসনে রাজি হওয়া রোহিঙ্গাদের খাবার দিচ্ছেনা জাতিসংঘ

জাতিসংঘ কারো বাপ-দাদার সম্পত্তি নয়। বিশ্বের সকল রাষ্ট্রের সম্মিলিত প্রয়াস এটি। তাদেরকে অবশ্যই মানবিক হতে হবে। দৈনন্দিন চাহিদা মিটানোর জন্য এবং সমস্যা দূর করার জন্য জাতিসংঘের উৎপত্তি।জাগতিক কিছু ধরাবাধা নিয়মকে ফলো করে মানুষের কষ্ট দেওয়া বিশ্বের সর্বোচ্চ সংস্থা থেকে কোনোভাবেই  কাম্য নয় ।

চার পরিবারের ২৪ জন রোহিঙ্গা স্বেচ্ছায় মিয়ানমারে ফিরে যেতে সম্মত হয়েছে। কিন্তু তারা প্রত্যাবাসনে সম্মত হওয়ার পর জাতিসংঘ তাদের খাদ্য সরবরাহ বন্ধ করে দেয়।

শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার (আরআরআরসি)। মিজানুর রহমান সমকালকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, পাইলট প্রকল্পে চারটি পরিবার প্রত্যাবাসনে সম্মত হয়েছে। এই চারটি পরিবারে ২৪ জন সদস্য রয়েছে। জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা ইউএনএইচসিআর সোমবার থেকে তাদের খাবার দেওয়া বন্ধ করে দিয়েছে। আমাদের কর্মকর্তারা বিকেলে ও রাতে এসব রোহিঙ্গাদের খাবারের ব্যবস্থা করেছেন।

প্রত্যাবাসনে সম্মত হওয়া চার রোহিঙ্গা পরিবার ভাসানচরে অবস্থান করছে। প্রত্যাবাসনে রাজি হওয়ায় তাদের কক্সবাজারে নিয়ে আসা হয়।

চার পরিবারের খাদ্য বন্ধের কারণ জানতে জাতিসংঘের ঢাকা কার্যালয় ও ইউএনএইচসিআরের সঙ্গে যোগাযোগ করলেও তাদের কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

    1 Comment

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    X